1. multicare.net@gmail.com : সময়ের পথ :
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৩:০৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
বড়পুকুরিয়ায় ঘরবাড়ী ফাটলের ক্ষতিপূরণের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন। আইবিএন শেয়ার হোল্ডারস মিটআপ রেদোয়ান আহমেদ। বিজয়ী প্রার্থীকে ফুলের মালা পরিয়ে ভাইরাল দৌলতপুরের ওসি রফিকুল নওগাঁর বলিহারে বিট ও কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত খন্ডবিখন্ড,মরদেহ উদ্ধার এমপি আনারের,উঠে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য। খাজা শাহ্ নূর দরবেশ মৌলা (রহঃ) এঁর চন্দ্রবার্ষিকী ওফাত শরীফ উপলক্ষে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে শান্তির মঙ্গল শোভাযাত্রায় হাজারো মানুষের ঢল লামার উপজেলা নির্বাচনে বিজয়ী আবারও চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল নতুন ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন দুইজন নওগাঁয় ফেসবুকে পোষ্ট দিয়ে যুবকের আত্নহত্যা কুষ্টিয়া জেলা আ’লীগের সভাপতিকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

১২ নং ওয়ার্ডের জনগণ সব সময় যাকে কাছে পেয়েছে নাম তার আনিস।

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বুধবার, ৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ৭৮ বার পড়া হয়েছে

 

ময়মনসিংহ থেকে সময়ের পথের বিভাগীয় প্রধানের প্রতিবেদন

অনেকটাই জমে উঠেছে ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। এই নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী, মহিলা কাউন্সিলর এবং পুরুষ কাউন্সিলর প্রার্থিতা ফরম তুলেছে অনেকে। তন্মধ্যে কিছু কাউন্সিলর জনপ্রিয়তাকে ধরে রাখতে পেরেছেন যার উদাহরণ ১২ নং ওয়ার্ডের আনিসুর রহমান আনিস। ১২ নং ওয়ার্ডের আনিস তার শুরু থেকেই জনগণের পাশে থেকেছেন সব সময় বিপদ আপদ ছাড়াও এমনিতেই কুশলাদি সালাম বিনিময় বহাল রেখেছেন।রাস্তাঘাটের কাজও করেছেন অনেক, এলাকার উন্নয়ন করেছেন, জনগণের পাশে থেকে জনগনের জন্য কাজও করেছেন তাই জনপ্রিয়তাকে ধরে রাখতে পেরেছেন ।এই কাউন্সিলরের নেই কোন অভিযোগ,নেই কোন অনুদান দেয়া থেকে বিরতের অভিযোগ। নেই কোন অহংকার অহমিকা, সদা হাস্যোজ্জ্বল এই আনিস এখনো মন জয় করেই চলেছেন। বলা যায় নিজের ওয়ার্ড কে আগলে রেখে চলতে পেরেছেন নিজের পরিবারে সদস্যদের মতো করেই। কথা হল আনিসের সাথে- তিনি জানালেন সবার বাড়ির ভাতের পাতিলের খবরই যদি না রাখতে পারেন তবে জনসেবক হলেন কিভাবে। সবাই আমার আপন, কে ভোট দিলো আর কে ভোট দিলো না ওটা আমার কাছে মূল বিষয় নাহ৷ জনসেবা এমন একটা বিষয় যিনি বিরক্ত বোধ করেন তার পক্ষে জনসেবা করা সম্ভব না। সবার কথাটা মনযোগ দিয়ে শুনতে হবে৷ কোনক্রমেই দরিদ্রদের কথায় বিরক্তবোধ হওয়াই যাবেনা৷ কারন তারা আমাকে জনপ্রতিনিধি করেছেন তাদের কথা শোনার জন্যই৷ আমি বেশ আনন্দিত হই যখন আমার কাছে কোন মেহমান আসে৷ আমি সব সময় আমার ওয়ার্ডের প্রতিটি মানুষ কে মেহমান হিসাবে গন্য করি৷ আমাকে জনগন কেমন ভাবলো সেটা আমার কাছে মূল বিষয় না।
পৃথিবীতে একটা মানুষ সবার কাছে ভালো থাকতে পারেনা৷ ভালো মন্দ মিলেই মানুষ।
শিব্বির সাহেব আপনি হয়ত জানেন চেয়ারের দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে এর অমর্যাদা করিনি কোনদিন। জনসেবা করে ভালো লাগে কারন তো ঐ একটাই জনগন ভালোবাসে ভালোবাসার বিনিময়ে। ভালোবাসা অর্জন করতে জনগনকে ভালোবাসাতে হবে।
সময়ের পথের সম্পাদক নাঈম সাহেব কে অনেক ধন্যবাদ ও তার প্রতি কৃতজ্ঞ৷ আর আপনাদের মতো মানুষকে সম্মান করি সব সময়। দোয়া চাই আপনাদের। জগনগনের পাশে থেকে সেবা করে যেতে চাই।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় : ইয়োলো হোস্ট