1. multicare.net@gmail.com : সময়ের পথ :
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৩:১৬ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
বড়পুকুরিয়ায় ঘরবাড়ী ফাটলের ক্ষতিপূরণের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন। আইবিএন শেয়ার হোল্ডারস মিটআপ রেদোয়ান আহমেদ। বিজয়ী প্রার্থীকে ফুলের মালা পরিয়ে ভাইরাল দৌলতপুরের ওসি রফিকুল নওগাঁর বলিহারে বিট ও কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত খন্ডবিখন্ড,মরদেহ উদ্ধার এমপি আনারের,উঠে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য। খাজা শাহ্ নূর দরবেশ মৌলা (রহঃ) এঁর চন্দ্রবার্ষিকী ওফাত শরীফ উপলক্ষে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে শান্তির মঙ্গল শোভাযাত্রায় হাজারো মানুষের ঢল লামার উপজেলা নির্বাচনে বিজয়ী আবারও চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল নতুন ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন দুইজন নওগাঁয় ফেসবুকে পোষ্ট দিয়ে যুবকের আত্নহত্যা কুষ্টিয়া জেলা আ’লীগের সভাপতিকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

বাগেরহাটের জেলা রেজিস্ট্রার ভদ্রতা মুখোশে ধর্ষণ! নানা অনিয়মে অভিযুক্ত

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১১৬ বার পড়া হয়েছে

বাগেরহাটের জেলা রেজিস্ট্রার ভদ্রতা মুখোশে ধর্ষণ!নানা অনিয়মে অভিযুক্ত
নিজস্ব প্রতিবেদক
বাগেরহাটের সাবেক জেলা রেজিস্ট্রার ফজলুর রহমান দুর্নীতি নানা অনিয়মের দায়ে চাকরিচ্যুত।জেলা রেজিস্ট্রার নামে এক বাক্যে পরিচিত ফজলুর রহমান যিনি নানা অভিযোগে অভিযুক্ত হলেও দৃশ্য-অদৃশ্য ক্ষমতা বলে কলে বলে সুকৌশলে থাকে ধরাছোঁয়ার বাহিরে।তার বিরুদ্ধে রয়েছে নানা অভিযোগ। যুবতী এক কিশোরীকে অভিভাবকের দায়িত্বে থেকে চাকরি দেওয়ার আশ্বাসে নানা প্রলোভনে দীর্ঘদিন এক নারীকে সরলতার সুযোগে কৌশলে বাড়িতে আটকে রেখে ধর্ষণ।

গত ২৪ অক্টোবর, মঙ্গলবার মোরেলগঞ্জ প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করে ভুক্তভোগী পরিবার।অভিযুক্ত ফজলার রহমান ফরিদপুর জেলার আলফাডাঙ্গা উপজেলার কুচিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল মান্নান মোল্লার ছেলে।

ভুক্তভোগূ লিখিত বক্তব্য এবং অভিযোগে জানান,ভুক্তভোগী বারবার পালিয়েও তার হাত থেকে বাঁচতে পারেনি।ভুক্তভোগী ও পরিবারকে রকমের হয়রানি আর্থিক শারীরিক মানসিক সামাজিক অপরনীয় ক্ষয়ক্ষতি সহ অসংখ্য পরিস্থিতিতে ভুক্তভোগী একাধিকবার আত্মহত্যা করতে গিয়েও রক্ষা পাইনি জেলা রেজিস্টার ফজলুর রহমান এর ফাঁদ পাতা ছোবল থেকে থেকে। শুধু ভুক্তভোগী নয় ভুক্তভোগীর স্কুলশিক্ষিকা বোনের বিরুদ্ধে একাধিক মিথ্যা মামলা নানাভাবে হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে।বাদ পড়ে নিয়ে ভুক্তভোগীর পরিবার আত্মীয়-স্বজন কেউই।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ধর্ষণের শিকার নারীর স্কুলশিক্ষিকা বোন। ভুক্তভোগী স্কুলশিক্ষিকা বলেন, ফজলার রহমানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) মোট ৭টি মামলা দায়ের করেছে। এসব মামলার মধ্যে ফজলার ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার সাব রেজিস্ট্রার থাকাকালীন দুর্নীতির দায়ে ৬টি ও ফরিদপুরে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
তিনি জানান, দুর্নীতির দায়ে চাকরিচ্যুত জেলা রেজিস্ট্রার ফজলার রহমান তাঁর বোনকে সাব রেজিস্ট্রার অফিসে চাকরি দেওয়ার আশ্বাসে তাঁর বাড়িতে গৃহপরিচারিকার কাজ করাতে থাকেন। বিপত্নীক ফজলুর রহমান এক পর্যায়ে তাঁর বোনকে ধর্ষণ করেন। পরে বিয়ের আশ্বাসে তাঁর বোনের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এভাবে বাড়িতে কয়েক বছর আটকে রেখে ভুক্তভোগীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক চালিয়ে যান। কিন্তু দীর্ঘদিনেও তিনি ভুক্তভোগীকে বিয়ে বা চাকরি প্রদান কোনোটিই করেননি। এক পর্যায়ে ফজলারের ছলচাতুরির বিষয়টি বুঝতে পেরে তাঁর বোন নিরুপায় হয়ে নিজের বাড়িতে চলে আসেন। পরে পারিবারিক সম্মান রক্ষার্থে তিনি উদ্যোগী হয়ে তাঁর বোনকে অন্যত্র বিয়ে দেন। বিষয়টি জানতে পেরে ফজলার ক্ষিপ্ত হন এবং তাঁকে (স্কুলশিক্ষিকা) একের পর এক মিথ্যা মামলায় জড়াতে থাকেন। একটি সিআর মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করালে তিনি ৫ দিন কারাগারে ছিলেন। যার কারণে তিনি চাকরি থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্তও হন। এতেও ক্ষান্ত না হয়ে ফজলার তাঁর বিরুদ্ধে বিবিধ বিষয় নিয়ে থানায় ও আদালতে একাধিক মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। এসব মামলায় ফজলার তার আপন ফুফাতো ভাই নুরুজ্জামান মোল্লাকেও আসামি করে হয়রানি করছেন। এভাবে তাঁকে একের পর এক মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানির কারণে তিনি নাবালক সন্তান ও পরিবার নিয়ে দিশাহারা হয়ে পড়েছেন। তিনি ফজলার রহমানের দায়ের করা এসব মিথ্যা মামলাগুলো থেকে তাঁকে রক্ষায় প্রশাসনের কাছে আইনি সহায়তার কামনা করেন।
অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাকরিচ্যুত জেলা রেজিস্ট্রার মো. ফজলার রহমানের ব্যক্তিগত নম্বরে একাধিক নাম্বারে কল দিলে সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে ফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেন।পরে বারবার কল দেওয়া হলেও তিনি কোন উত্তর দেননি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় : ইয়োলো হোস্ট