1. multicare.net@gmail.com : সময়ের পথ :
মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৩:১৭ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
বড়পুকুরিয়ায় ঘরবাড়ী ফাটলের ক্ষতিপূরণের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন। আইবিএন শেয়ার হোল্ডারস মিটআপ রেদোয়ান আহমেদ। বিজয়ী প্রার্থীকে ফুলের মালা পরিয়ে ভাইরাল দৌলতপুরের ওসি রফিকুল নওগাঁর বলিহারে বিট ও কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত খন্ডবিখন্ড,মরদেহ উদ্ধার এমপি আনারের,উঠে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য। খাজা শাহ্ নূর দরবেশ মৌলা (রহঃ) এঁর চন্দ্রবার্ষিকী ওফাত শরীফ উপলক্ষে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে শান্তির মঙ্গল শোভাযাত্রায় হাজারো মানুষের ঢল লামার উপজেলা নির্বাচনে বিজয়ী আবারও চেয়ারম্যান মোস্তফা জামাল নতুন ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন দুইজন নওগাঁয় ফেসবুকে পোষ্ট দিয়ে যুবকের আত্নহত্যা কুষ্টিয়া জেলা আ’লীগের সভাপতিকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

নওগাঁর বাইপাসে চাঞ্চল্যকর অটোচালক অতুল হত্যার রহস্য উদঘাটন,গ্রেফতার-৩

প্রতিবেদকের নাম:
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২ জুন, ২০২৩
  • ৪৪২ বার পড়া হয়েছে

নওগাঁর বাইপাসে চাঞ্চল্যকর অটোচালক অতুল হত্যার রহস্য উদঘাটন,গ্রেফতার-৩

এ.বি.এম.হাবিব- নওগাঁ 
নওগাঁয় ব্যাটারিচালিত অটোচালক অতুল কুমার সরকারের হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে নওগাঁর জেলা পুলিশ এবং ঘটনায় জড়িত ৩জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষমও হয়েছেন, হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত সরঞ্জামদিও উদ্ধার করেছেন।

বৃহস্পতিবার (১ জুন) দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশিদুল হক জানান,
হত্যার শিকার অতুল, নূর-এ ইসলাম ওরফে সনি বা সেজানের কাছ থেকে ৪৭ হাজার টাকা ধার করেছিলেন। কিন্তু তিনি তা পরিশোধ করেননি। সে জন্য অতুলকে হত্যা করে তার অটোরিকশার ৫টি ব্যাটারি লুট করার পরিকল্পনা করেছিলো সেজান।

পুলিশ সুপার বলেন, গ্রেফতারকৃতদের স্বীকারোক্তি মতে, গত ২১ মে সেজান তার সহযোগী রাব্বী সরদারকে নিয়ে শহরের উকিলপাড়া উত্তরা স্কুলের মোড় থেকে অতুলকে মদ খাওয়ার কথা বলে ডেকে নেন। এরপর তারা অতুলের অটোরিকশায় করে নওগাঁর বাইপাসে আজাদ নামের এক ব্যক্তির ইটভাটায় নিয়ে যায়। সেখানে তারা একসঙ্গে মদ পান করে। একপর্যায়ে সেজান ও রাব্বী মিলে বটি দিয়ে অতুলকে গলা কেটে হত্যা করে। এরপর শরীরের বিভিন্ন অংশ, দুই হাতের আঙুল কেটে তার মৃত্যু নিশ্চিত করে অটোরিকশার ব্যাটারী নিয়ে পালিয়ে যায়।

পরের দিন ২২ মে সকালে স্থানীয়রা গলাকাটা লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অতুলের লাশ উদ্ধার করেন এবং তা ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠান।

এ ঘটনায় নওগাঁ সদর মডেল থানায় হত্যা মামলা করা হলে পুলিশ গুরুত্ব সহকারে তদন্তে নেমে পড়েন।

তদন্তে সব কিছু নিশ্চিত হয়ে বুধবার (৩১ মে) ঢাকার উত্তরা থেকে প্রথমে সেজানকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। পরবর্তীতে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে নওগাঁ জেলার বদলগাছি উপজেলা থেকে রাব্বী নামের অপর জনকেও গ্রেফতার করেন। এবং তাদের দেওয়া স্বীকারোক্তি মতে অটোরিকশার ৫টি ব্যাটারির ক্রেতা আতিকুর নামের আরেক জনকেও গ্রেফতার করেছেন। তার সাথে ৫টি ব্যাটারী,হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত বটি, চোরা মোবাইল ফোনসহ অনেক কিছু উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছেন নওগাঁ জেলা পুলিশ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আরো লেখাসমূহ

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় : ইয়োলো হোস্ট